ভালোবাসার টিপস: ভালোবাসাকে দীর্ঘস্থায়ী করার ২০ টিপস

ভালোবাসার টিপস

ভালোবাসার টিপস মনিষীদের কথায়, অস্ত্র দিয়ে  দেশ জয় করা যায় কিন্তু ভালোবাসা বিশ্বকে জয় করা যায়। তাই যুগে যুগে ভালোবাসার কত জয়গাঁথা সোনালী স্মৃতি হয়ে স্বর্ণাক্ষরে সকল প্রেমিক হৃদয়ে লিপিবদ্ধ রয়েছে। ভালোবাসা পবিত্র সম্পর্কের প্রতিক। আর এই  সম্পর্ক  তখনি সম্পূর্ণতা পায় যখন প্রেমিক-প্রেমিকা বা স্বামী-স্ত্রী একে অপরের ভুলগুলোকে ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গিতে গ্রহণ করেন  এবং একসাথে স্বেচ্ছায় কাজ করার  মানসিকতা রাখেন । কখনও কখনও অনেকদিনের সম্পর্ক  সামান্য বিষয়কে কেন্দ্র তাসের ঘরের মত ভেঙ্গে যায়। সেইসাথে ভেঙ্গে যায় সম্পর্ক  অটুট রাখার প্রতিশ্রুতি। জীবনে নেমে আসে বিরহ ব্যাথার কালো অন্ধকার। তাই আসুন  জেনে নেই এই সম্পর্ক  ও  ভালোবাসাকে  দীর্ঘস্থায়ী করার ২১ টিপস, যা আপনার জীবনে সুখ ও সমৃদ্ধি বয়ে আনতে পারে।

যা যা আলোচনা করা হবে

ভালোবাসার টিপস ১: সম্পর্ক  অনুধাবন

আপনার প্রিয় মানুষটির সাথে আপনার সম্পর্ক  সঠিকভাবে অনুধাবন করুন। মনে করুন  আপনার সম্পর্কে  সৃষ্টিকর্তার অস্তিস্ত্ব ও অংশীদার বিদ্যমান। কেননা ইশ্বরকেন্দ্রিক সম্পর্ক  নিঃস্বার্থ ও পবিত্র হিসাবে বিবেচিত হয় তাই এটি অত্যন্ত যত্ন ও শ্রদ্ধার সহিত লালন করুন।

ভালোবাসার টিপস ২: নিঃস্বার্থ প্রেম

প্রেম- ভালোবাসা একটি আপেক্ষিক বিষয় তাই প্রেম করুন কোনো শর্ত ছাড়াই । আপনার প্রিয়মানুষটি  আপনার সকল চাহিদা পূরণ করতে না পারলেও আপনি তাকে হাসিমুখে ভালোবাসতে শিখুন।  কেননা আপনার সকল চাহিদা পূরণ না হলে হয়তো আপনাকে খারাপ লাগতে পারে কিন্তু আপনি একবার  ভেবেছেন কি আপনার চাহিদা পূরণ করতে না পারায় আপনার সঙ্গীকে কতটা খারাপ লাগছে, মনের মধ্যে কতটা অসহায়ত্ব, অপরাধ কিংবা বিব্রতবোধ কাজ করছে?

ভালোবাসার টিপস ৩: অন্তর থেকে ভালোবাসুন

অনেকেই আছেন যারা শুধু মুখের মিষ্টি বুলি আওড়ানো প্রেম করেন কিংবা সময় কাটানোর জন্য । এধরনের কার্যকালাপে এমন একটা সময় আসে যখন শুধু আত্মগ্লানি হয়, নিজেকে নিজে কুড়েকুড়ে খায়। জীবনের প্রকৃত অস্তিত্ব হারিয়ে যেতে বসে। তাই আপনার সঙ্গীকে অন্তর থেকে ভালোবাসুন।

ভালোবাসার টিপস ৪: শুধু  মুখে নয় কর্মে ভালোবাসা প্রকাশ করুন

কথায় কথায় প্রেম  ভালোবাসার প্রতিশ্রুতি  কিংবা অধিক ভালোবাসার প্রকাশ আপনার কথার মূল্য ও বিশ্বাসযোগ্যতা হারাতে পারে । তাই শুধু মুখে নয় আপনার কাজের মধ্য দিয়ে ভালোবাসা প্রকাশ করুন কেননা অন্তরের প্রেম-ভালোবাসা মুখে বলে দেখাতে হয় না। তা এমনিতেই সূর্যের আলোর মতো প্রকাশমান।

ভালোবাসার টিপস ৪: মাথা ঠান্ডা রাখুন

আপনার জীবনসঙ্গীর সাথে ভুল বোঝাবুঝির সময়ে আপনার ক্রোধকে সংবরণ করুন। আপনি কিছু বলার আগে আপনার সঙ্গীকে তার দিকটি ব্যাখ্যা করার সুযোগ দিন। যেকোনো বিষয় ভালোভাবে  যাচাই না করে কোনো বড় সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা থেকে  বিরত থাকুন।

ভালোবাসার টিপস ৫: গোপনীয়তা রাখবেন না

একে অপরের  কাছে গোপনীয়তা রাখবেন না। খোলামেলাভাবে  আলোচনা করুন  এতে বিশ্বাসের গোড়া মজঁবুত হয়।  মিথ্যা বলা থেকে বিরত থাকুন। মনে রাখবেন, একটি মিথ্যা অন্য একটি মিথ্যার জন্ম দেয় এবং একবার ফাঁস হলে সারজীবনের বিশ্বাস ভেঙ্গে যায়।

ভালোবাসার টিপস ৬: ক্ষমা চাইতে শিখুন

মানুষের জীবনের চলার পথে অজান্তেই নানারকম ভুল-ত্রিুটি হয়ে যায়। এমন কিছু ভুল হয় যা ব্যাক্তি সেই সময়ে মানতেই চাননা। তখনি জীবনসঙ্গীর সাথে মতের ফাটল ধরে। এধরনের পরিস্থিতিতে আপনার দোষ থাকুক বা না থাকুক  ক্ষমা চাইতে আপনিই প্রথম হন। এতে সম্পর্কে নম্রতা বজায় থাকে।

ভালোবাসার টিপস ৭: প্রশংসা করতে উদার হন

আপনার কাছের মানুষ আপনার জন্য করা প্রতিটি ছোট্ট জিনিস বা বিষয়ের প্রশংসা করার অভ্যাস করুন। এতে যেমন সে অনুপ্রাণিত হয়ে আরও কাজ করার স্পৃহা পাবে সেইসঙ্গে আপনার প্রতি ভালোবাসাও বেড়ে যাবে।

ভালোবাসার টিপস ৮: কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করুন

কাছের মানুষ কেউ কারো উপকার করলে উপকারকারী বলেন, “আরে না না এর জন্য কোনো ধন্যবাদ দিতে হবে না” কিন্তু তবুও তিনি মনে মনে একটু কৃতজ্ঞতা প্রকাশের প্রত্যাশা করেন। তেমনি আপনার জীবনসঙ্গীর সহযোগিতাকে “আমি তোমাকে ভালোবাসি” বা “ধন্যবাদ প্রিয়” প্রভৃতি নিজের মত করে বলার মাধ্যমে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করুন এতে সম্পর্ক  আরও নিবিড় হয়।

ভালোবাসার টিপস ৯: মনের কথা বুঝতে চেষ্টা করুন

একে অপরের মনের ভাষা বুঝতে শিখুন। আপনার সঙ্গীর মনের অভিব্যক্তিটি সন্ধান করে তার দুঃখ, কষ্ট, সুখকে ভাগ করে নিন। কেননা সব মনের কথা সবসময়  প্রকাশ হয় না ।

ভালোবাসার টিপস ১০: আপনার সঙ্গীর ত্রুটিগুলো গ্রহণ করুন

প্রত্যেক মানুষের কিছু না কিছু ত্রুটি আছেই। তাই  আপনার সঙ্গীর ত্রুটিগুলি গ্রহণ করুন। মনে করে দেখুন আপনিও কিন্তু একবারে নিখুঁত নন। কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে নিজেকে তার জায়গায়  একবার দাঁড় করান।

ভালোবাসার টিপস ১১: একে অপরকে অনুপ্রাণিত করুন

একে অপরের প্রচেষ্টা, আবেগ এবং স্বপ্নকে শ্রদ্ধা ও সমর্থন করুন। জীবনকে উন্নত থেকে উন্নত করার জন্য একে অপরকে অনুপ্রাণিত করুন। একে অপরের সেরা ভক্ত এবং প্রেরণাদায়ক হন।

ভালোবাসার টিপস ১২: আপনার সঙ্গীর আস্থায় স্থির থাকুন

আপনার সঙ্গী আপনার ওপর আস্থা আছে বিধায় আপনাকে ভরসা করে, ভালোবাসে, সম্মান করে। তাই আপনি আপনার সঙ্গীর আস্থায় স্থির থাকুন। আপনি জেনে-বুঝে এমন কিছু করবেন না যাতে আপনার   সঙ্গী আপনার ওপর আস্থা হারিয়ে ফেলে।

ভালোবাসার টিপস ১৩: সম্পর্কে শ্রদ্ধাপূর্ণ আচরণ করুন

ভালোবাসার অন্তরালে শ্রদ্ধা নিহিত থাকে। শ্রদ্ধাহীন ভালোবাসা অন্তঃদুরত্ব তৈরি করে। শ্রদ্ধা সম্পর্কে আপনার  ভ্রান্ত ধারণাগুলো পরিহার করুন। কেননা শ্রদ্ধা ব্যাক্তি ও পরিবেশ ভেদে ভিন্নভাবে প্রকাশমান। মায়ের প্রতি শ্রদ্ধা যেমন মায়ের জায়গাতেই থাকে তেমনি জীবনসঙ্গীর প্রতি শ্রদ্ধাও তার জায়গাতেই রাখা উচিত। এছাড়াও শ্রদ্ধার আরেক নাম ভালোবাসা অথ্যাৎ একে অপরের অন্তঃপ্রকাশ ও বহিঃপ্রকাশ। তাই সম্পর্ককে দীর্ঘস্থায়ী করতে একে অপরের সাথে শ্রদ্ধপূর্ণ  আচরণ করুন।

ভালোবাসার টিপস ১৪: মতামতকে গুরুত্ব দিন

জীবনসঙ্গী পরস্পর একে অপরের প্রতি দায়বদ্ধ। দুজন দুজনের ভালো-মন্দ দেখার দায়িত্ব রয়েছে। তাই যেকোনো বড় সিদ্ধান্ত গ্রহণে একে অপরকে  জড়িত করুন। একজনের মতামত আরেকজন সুচিন্তিতভাবে ভাবুন এবং মতামতকে গুরুত্ব দেওয়ার চেষ্টা করুন।

ভালোবাসার টিপস ১৫: ঝগড়ায় অহেতুক কথা বাড়াবেন না

দাম্পত্য জীবনে টুকিটাকি ঝগড়া হওয়াটা স্বাভাবিক। তবে ঝগড়ার সময়  যখন আপনার কাছে বলার ভাল কিছু নেই তখন চুপ থাকুন। আপনার উদ্ভট শব্দচয়ন  নতুন ভুল বোঝাবুঝির জন্ম দিতে পারে। তাই ঝগড়ায় অহেতুক কথা বাড়াবেন না এবং সাবধানতার সাথে আপনার শব্দ নির্বাচন করুন।

ভালোবাসার টিপস ১৬: তার স্বপ্ন ও আগ্রহের মূ্ল্যায়ন করুন

সে কী করতে আগ্রহী তার স্বপ্ন কি  তা নিয়ে আগ্রহ প্রকাশ করুন। এমনকি যদি আপনি চারুকলা, খেলাধুলা বা সাহিত্য পছন্দ নাও করেন তারপরেও অত্যন্তপক্ষে  আপনি  তার পছন্দ ও স্বপ্ন আগ্রহেরর সাথে  জানার চেষ্টা করুন। আপনার সঙ্গীকে  তার স্বপ্ন অনুসরণ করতে বাধা দেয়া স্বার্থপরতা। তাই তাকে  তার স্বপ্নময় বিস্তার ডানায় উঁচুতে উঠতে সহযোগিতা করুন।

ভালোবাসার টিপস ১৭: আপনার সঙ্গীর জন্য কিছু সময় রাখুন

জীবনের তাগিদে মানুষ ডুবে যায়  ব্যস্ততার ভিড়ে। আপনিও যদি সেই ব্যস্ত মানুষদের মধ্যে একজন হোন তবে আপনি যতই ব্যস্ত থাকুন না কেন  যখনই আপনাকে আপনার জীবনসঙ্গীর প্রয়োজন হবে আপনি তার জন্য কিছুটা হলেও সময় দিন। প্রয়োজনে তার জন্য আপনার রুটিনে সময় তৈরি করুন।

ভালোবাসার টিপস ১৮: একসাথে প্রার্থনা করার অভ্যাস করুন

মাদকদ্রব্য পরিহার করে আপনার সঙ্গীসহ একসাথে প্রার্থনা করার অভ্যাস করুন। এতে মনের প্রশান্তি ও হৃদয়ের ভাবনা শুদ্ধ হয়। দুজনের কল্যাণকামনা সংসারকে সুখী রাখে।

ভালোবাসার টিপস ১৯: আপনার সাফল্যকে ভাগ করুন

জীবনে আপনার সুন্দর কর্ম দ্বারা অনেক সাফল্য আসতে পারে । আপনার সাফল্যে আপনার সঙ্গীর ভূমিকা এবং তার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশের মাধ্যমে আপনার সাফল্যকে ভাগ করে নিন। আর হ্যাঁ শুধু নিজের সাফল্যের দিকে মনোনিবেশ করবেন না। যখন আপনার সঙ্গীর ব্যর্থতায়  তাকে শান্তনা ও অনুপ্রেরণা দিয়ে  তাকে সহায়তা করুন।

ভালোবাসার টিপস ২০: ব্রেক-আপ নেওয়ার আগে যা অবশ্যই ভাবা উচিত

মানুষ একটা দীর্ঘ পথ একসাথে পাড়ি দেওয়ার পরেও কখনও কখনও নিজহাতে সম্পর্ক ভেঙ্গে ফেলে। তার জন্য সময়, ভাগ্য ও পরিস্থিতিকে দায়ী করা হয়। এধরণের পরিস্থিতি জটিল হয়ে উঠলে আপনি কেন তাকে ভালোবেসেছিলেন সেই কারণটি মনে করুন। সেইসাথে তারসাথে ঘটে যাওয়া সোনালী স্মৃতিগুলোকে একটু ভাবুন। হতেপারে আপনার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন হয়ে গেছে।

আপনাদের ধর্য, শুদ্ধ ভাবনা, কর্ম ও সিদ্ধান্তই আপনাদের সাংসারিক জীবনকে সুখী করতে পারে। সুখে থাকুন ভালো থাকুন। আজকের আলোচিত ”ভালোবাসাকে দীর্ঘস্থায়ী করার টিপস” পোস্টটি ভালো লাগলে আপনার সোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করে আপনার পরিচিত জনদের দেখার সুয়োগ করে দিন।

আরও পড়ুন

বেশি পেঁয়াজ খাওয়ার ৭টি ক্ষতিকর প্রভাব

5 COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here