৬ষ্ঠ শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট কর্ম ও জীবনমুখী শিক্ষা উত্তর | Class 6 jibon o kormomukhi sikkha | ৫ম সপ্তাহ

৬ষ্ঠ শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট কর্ম ও জীবনমুখী শিক্ষা উত্তর | Class 6 jibon o kormomukhi sikkha | ৫ম সপ্তাহ

৬ষ্ঠ শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট কর্ম ও জীবনমুখী শিক্ষা উত্তর | Class 6 jibon o kormomukhi sikkha | ৫ম সপ্তাহ: ২০২১ সালে ৬ষ্ঠ শ্রেণির ৫ম সপ্তাহে প্রকাশিত হয়েছে বাংলা এবং কর্ম  জীবনমূখী শিক্ষা এসাইনমেন্ট । সুপ্রিয় শিক্ষার্থী বন্ধুরা, টিপস সেন্টারে tipscenter24.com সবাইকে স্বাগতম। তোমরা যারা ৬ষ্ঠ শ্রেনীতে পড় তোমাদের সুবিধার জন্য আমরা ৫ম সপ্তাহের কর্ম ও জীবনমুখী শিক্ষা এসাইনমেন্ট এর নির্ধারিত কাজ এবং তার সমাধান নিয়ে হাজির হয়েছি। এই পোস্ট অনুসরণ করে তোমরা ২০২১ সালের ৬ষ্ঠ শ্রেণি ৫ম সাপ্তাহের কর্ম ও জীবনমূখী শিক্ষা বিষয়ের সমাধান সুন্দরভাবে লিখতে পারবে।

এছাড়াও তোমরা আমাদের সাইটে ৬ষ্ঠ শ্রেনির সকল এ্যাসাইনমেন্ট এর প্রশ্ন ও উত্তর পাবে। পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করে তোমার বন্ধু বা প্রিয়জনকে দেখার সুযোগ করে দিও।

৬ষ্ঠ শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট কর্ম ও জীবনমুখী শিক্ষা উত্তর | Class 6 jibon o kormomukhi sikkha | ৫ম সপ্তাহ

শিক্ষার্থীরা নিজ বিদ্যালয় প্রদত্ত সময়ের মধ্যে নির্ধারিত এসাইনমেন্ট নির্দেশনা অনুসরণ করে বাংলাদেশের সাথে একই সময়ে কর্ম ও জীবনমুখী শিক্ষা অ্যাসাইনমেন্ট সম্পন্ন করে সংশ্লিষ্ট বিষয় শিক্ষকের নিকট জমা দিবেন।

৬ষ্ঠ শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট কর্ম ও জীবনমুখী শিক্ষা উত্তর | Class 6 jibon o kormomukhi sikkha | ৫ম সপ্তাহ

৬ষ্ঠ শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট কর্ম ও জীবনমুখী শিক্ষা উত্তর | Class 6 jibon o kormomukhi sikkha | ৫ম সপ্তাহ

এ্যাসাইনমেন্ট বা নির্ধারিত কাজের ক্রম:
এ্যাসাইনমেন্ট বা নির্ধারিত কাজ-১,
অধ্যায় ও অধ্যায়ের শিরােনাম:
প্রথম অধ্যায়: কর্মেই আনন্দ,
পাঠ্যসূচিতে অন্তর্ভুক্ত পাঠ নম্বর ও বিষয়বস্তু:
পাঠ-১: আত্মমর্যাদার ধারণা,
পাঠ ২-৪: কাজের ক্ষেত্রে আত্মমর্যাদা;

কর্ম ও জীবনমুখী শিক্ষা এ্যাসাইনমেন্ট বা নির্ধারিত কাজ:

একজন আত্মমর্যাদাবান মানুষ হিসেবে কোন কোন বৈশিষ্ট্য তােমার মধ্যে আছে? আর কি কি বৈশিষ্ট্য নিজের মধ্যে দেখতে চাও এবং কেন?

কর্ম ও জীবনমুখী শিক্ষা অ্যাসাইনমেন্ট নির্দেশনা:

১. আত্মমর্যাদার ধারণা দিবে,
২. আত্মমর্যাদার বৈশিষ্ট্য উল্লেখ করবে,
৩. আত্মমর্যাদাবান মানুষের আর কোন কোন বৈশিষ্ট্য তার মধ্যে দেখতে চায় এবং কেন? যুক্তিসহ লিখবে,
৪. এ বিষয়ে পাঠ্যপুস্তক ও প্রয়ােজনে অভিভাবকদের সহযােগিতা নিবে।

৬ষ্ঠ শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট কর্ম ও জীবনমুখী শিক্ষা উত্তর | Class 6 jibon o kormomukhi sikkha | ৫ম সপ্তাহ

কর্ম ও জীবনমুখী শিক্ষা অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর এখান থেকে শুরু

আত্মমর্যাদা: কর্মেই আনন্দ। কাজের মাধ্যমে যেমন সফলতা অর্জন করা যায় তেমনি নিজেকে আত্মবিশ্বাসী হিসেবে তৈরি করা যায়। কর্মের মাধ্যমে সমাজের আত্মমর্যাদা অর্জন করা যায়। আত্ম শব্দের অর্থ হলো নিজ আর মর্যাদা শব্দের অর্থ হলো সম্মান। আত্মমর্যাদা মানে হল অপরকে সাহায্য করা, নিজেকে ভালোবাসা ও অন্যের প্রতি সহনশীল হওয়া, অন্যকে সম্মান করা, অন্যের পছন্দ-অপছন্দকে সম্মান করা ইত্যাদি। অনেকে মনে করেন আত্মমর্যাদা হলো নিজের কাছে নিজের সম্মান ও মানুষ হিসেবে নিজের পরিচয় সম্পর্কে সচেতন থাকা কিন্তু বস্তুতপক্ষে আত্মমর্যাদা হলো নিজের চারপাশ ও নিজের অবস্থান সম্পর্কে সচেতন থাকা এবং সে অনুযায়ী আচরণ করা। অন্যায় কাজ করতে লজ্জাবোধ করা, মানুষ হিসেবে সকল মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্য আচরণ করা, ভালো নতুন কিছু চিন্তা করা ইত্যাদি হল আত্মমর্যাদার পরিচয়।

আত্মমর্যাদার বৈশিষ্ট্য: আত্মমর্যাদার কিছু বৈশিষ্ট্য রয়েছে। যার মধ্যে এসব গুণ রয়েছে তাঁকে আমরা আত্মমর্যাদাবান ব্যক্তি বলে বিবেচিত করতে পারি।  বৈশিষ্ট্যগুলো হল-

১। সদা সত্য কথা বলা।
২। যথাযথভাবে কাজ করার চেষ্টা করা।
৩। ভালো মানুষ হিসেবে কাজ করা।
৪। অন্যায়ের প্রতিবাদ করা। 
৫। সকল ধরনের দুর্নীতি থেকে নিজেকে বিরত রাখা।
৬। সময়ের কাজ সময়ে করা।
৭। অন্যকে সম্মান করা।
৮। ছোটদের স্নেহ করা।
৯। অন্যের উপর নির্ভরশীল না হয়ে নিজের কাজ নিজে করা।
১০। ভালোকে ভালো ও খারাপকে খারাপ বলা।
১১। সকলের সাথে ভালো ও উত্তম আচরণ করা।

উপরে বর্ণিত বৈশিষ্ট্যগুলো ছাড়াও আরও কিছু বৈশিষ্ট্য আমি আমার নিজের মধ্যে দেখতে চাই। যেমন: 

আত্মবিশ্বাস: আত্মবিশ্বাস মানে হলো নিজের প্রতি আস্থা কাজেই আত্মবিশ্বাসী হলে কাজে সফলতা আসবেই আর একজন আত্মমর্যাদাবান ব্যক্তি সর্বদায় নিজের কাজের প্রতি আত্মবিশ্বাস থাকেন। তাই আমি নিজের মধ্যে আত্মবিশ্বাসী বৈশিষ্ট্যটি দেখতে চাই।

সাহস: অনেকেই অনেক কিছু পারে। অনেক কিছু জানে কিন্তু সাহসের অভাবে বলতে বা করতে পারে না। আমি মনে করি একজন আত্মমর্যাদাবান ব্যক্তির সাহস থাকা প্রয়োজন। কারণ নিজের মধ্যে সাহস থাকলে অন্যায়ের প্রতিবাদ করা যায় এবং সৎ সাহস নিয়ে দেশ ও জাতির উন্নতি সাধন করা যায়।

সচেতনতা: একজন আত্মমর্যাদাবান ব্যক্তির বড় একটি গুণ হল সচেতনতা। আমি নিজের মধ্যে এই গুনটি দেখতে চাই কারণ এখজন সচেতনতা গুণসম্পন্ন মানুষ সবসময় তাঁর নিজের ও পারিপার্শ্বিকতার প্রতি সচেতন থাকে, চারপাশে কি হচ্ছে এবং তিনি কি করছেন সে সম্পর্কে খেয়াল রাখে।

দূরদর্শিতা: আমি নিজের মধ্যে এই গুনটি দেখতে চাই। কারণ দূরদর্শিতাসম্পন্ন ব্যক্তি সবসময় পরিকল্পনা মাফিক কাজ করেন। কাজ শুরু করার পূর্বে এর ভালো বা খারাপ দিকগুলো কী কী হতে পারে সে সম্পর্কে আগে থেকেই চিন্তা ভাবনা করে থাকেন। এতে করে কাজের সফলতা বেড়ে যায়। 

কর্ম ও জীবনমুখী শিক্ষা অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর এখান থেকে শেষ

এ্যাসাইনমেন্ট এর সকল তথ্য সমাধান ও আপডেট নোটিশ পেতে আমাদের পেজে লাইক দিয়ে যুক্ত থাকুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here